রবিবার, ২ অক্টোবর ২০২২
১৭ আশ্বিন ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

জামায়াতের ‘জোট ছাড়ার’ ঘোষণা, বিএনপি-আ. লীগের প্রতিক্রিয়া

অনলাইন ডেস্ক | আপডেট: সোমবার, আগস্ট ২৯, ২০২২

জামায়াতের ‘জোট ছাড়ার’ ঘোষণা, বিএনপি-আ. লীগের প্রতিক্রিয়া
দীর্ঘদিন ধরেই আন্ডারগ্রাউন্ডে জামায়াত। প্রকাশ্যে কোনো কর্মসূচি দেখা না গেলেও ভেতরে ভেতরে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে দলটি। সে রকমই একটি ঘরোয়া অনুষ্ঠানে ‘বিএনপি জোট’ ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছেন দলটির আমির ডা. শফিকুর রহমান। সেই বক্তব্যের ভিডিও এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। এরপর থেকে রাজনৈতিক অঙ্গনে নানামুখী আলোচনা, কৌতূহল ও প্রশ্ন দেখা দেয়।

একাদশ সংসদ নির্বাচনের পর থেকে বিএনপি ও জামায়াতের সম্পর্কে টানাপড়েন শুরু হয়। এরপর থেকেই মূলত ২০ দলীয় জোট নিষ্ক্রিয়। নেই কোনো যুগপৎ আন্দোলন। তবে জোট ছাড়ার ঘোষণা দিলেও জাতীয় স্বার্থে একই দাবিতে যুগপৎ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করার ঘোষণা দেন জামায়াতের আমির।

তবে জামায়াতের অন্য নেতারা বলছেন, জোটের বিষয়ে তারা আগের অবস্থানেই আছেন। নতুন করে কিছু ঘটেনি। এ বিষয়ে জামায়াতের প্রচার বিভাগের সেক্রেটারি মতিউর রহমান আকন্দ বলেন, ‘আমিরের বক্তব্য অনানুষ্ঠানিক ও ব্যক্তিগত। জামায়াত জোট ছাড়েনি।’

জামায়াতের আরেক নেতা আব্দুল হালিম বলেন, ‘বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটের সঙ্গে জামায়াতে ইসলামী আছে, জোট ছাড়েনি। আমাদের ঘরোয়া একটি বৈঠকে তিনি (আমির) যে অভিব্যক্তি প্রকাশ করেছেন তাতে এমন কোনো ঘোষণা ছিল না। জোটের যে গুরুত্ব এবং তাৎপর্য বিএনপি সেটিকে যথাযথ গুরুত্ব দিচ্ছে না বলেই আমির তার মনোভাব প্রকাশ করেছেন।’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী গণমাধ্যমকে বলেন, ‘যার যার অবস্থানে থেকে যুগপৎ আন্দোলন হবে এ সিদ্ধান্ত হয়েছে। বর্তমান ফ্যাসিস্ট সরকারের পতনের জন্য বাম-ডান, মধ্যপন্থি, ইসলামিপন্থি সব দল যার যার অবস্থান থেকে এ আন্দোলনে শরিক হবেন। তিনি তার (জামায়াত আমির) বক্তব্যে এটিই বুঝিয়েছেন।’

এদিকে জামায়াতের জোট ছাড়ার বিষয়টিকে কৌশল হিসেবে দেখছেন আওয়ামী লীগের নেতারা। এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুর রহমান এক অনুষ্ঠানে বলেন, ‘বিএনপির বড় উইকেট পড়ে গেছে। জামায়াতে ইসলামী বলেছে, বিএনপির সঙ্গে তারা আর নেই। বিএনপি নৈরাজ্য করে ক্ষমতায় আসতে পারবে না। নৈরাজ্য করলে ছাত্রলীগ বসে থাকবে না।’

0 Comments