মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪
৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট: মঙ্গলবার, এপ্রিল ২, ২০২৪

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ
আমি ইমরুল কায়েস গত একযুগেরও বেশি সময় ধরে বাংলাদেশ রাষ্ট্রীয় চিকিৎসা অনুষদের সহকারী পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক হিসেবে সুনামের সাথে কাজ করে আসছি। গত ২৭ মার্চ, ২০২৪ একটি জাতীয় পত্রিকায় “ক্যাশিয়ার থেকে কোটিপতি” এই শিরোনামে আমাকে এবং নারী উদ্যোক্তা আমার স্ত্রীকে নিয়ে উদ্দেশ্যমূলক একটি সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে। সংবাদটিতে যে তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছে, যা প্রতিবেদকের মনগড়া, অসত্য এবং উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। এ ধরণের উদ্দেশ্যমূলক প্রতিবেদন প্রকাশ করে আমাকে কর্মক্ষেত্রে এবং সামাজিকভাবে হেয় করা হয়েছে যাহা মানহানির শামিল।
পাশাপাশি একই ধরণের শিরোনামে কয়েকটি জাতীয় দৈনিক এবং একটি অনলাইনে এই সংবাদ প্রকাশ করা হয়। উলেস্নখ্য, একটি জাতীয় দৈনিক ও অনলাইনের সংবাদের প্রতিটি শব্দ হুবহু একই। এতেই প্রতীয়মান হয় যে, প্রকাশিত প্রতিবেদন উদ্দেশ্য প্রণোদিত। প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আমি প্রভাব খাটিয়ে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকুরি প্রদান করি। এসব প্রকাশিত সকল অভিযোগ ভিত্তিহীন। এই অভিযোগের বিষয়ে তদম্মুে আমার কোনো যোগসূত্র পায়নি কমিটি, সেটিও স্বীকার করা হয়েছে প্রতিবেদনে। এছাড়া স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান হিসেবে সরকারি চাকুরির সব বিধিমালা বাংলাদেশ রাষ্ট্রীয় চিকিৎসা অনুষদের ওপর প্রযোজ্য নয়। আমার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ করা হয়েছে প্রকাশিত প্রতিবেদনে। উলেস্নখ্য দুর্নীতির অভিযোগ তদক্ষ্ম করে আমাকে অব্যাহতি দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন। সুতরাং প্রতিবেদকের এই অভিযোগটিও সঠিক নয়। আমার কাজ এবং প্রতিষ্ঠানে অবস্থানের প্রতি ঈর্ষান্বিত হয়ে প্রতিবেদনে এসব বিষয় প্রকাশ করা হয়েছে। পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক হিসেবে ফলাফল প্রকাশে আমার অংশগ্রহণ থাকলেও মূল্যায়ন ও তা কোথায় প্রকাশিত হবে, সেটি প্রতিষ্ঠানের নীতিমালা অনুযায়ী হয়ে থাকে। তাই পরীক্ষার ফলাফল ও মূল্যায়ন নিয়ে প্রতিবেদনে যে অভিযোগ করা হয়েছে, সেটি সঠিক তথ্যের ভিত্তিতে করা হয়নি। এমনকি মানবতার সেবায় পারিবারিকভাবে গঠিত একটি প্রতিষ্ঠানকে জড়িয়ে মিথ্যা তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছে প্রতিবেদনে। অতীতে নিষ্পত্তিকৃত অভিযোগ পুনরায় জনসম্মুখে এনে আমাকে এবং আমার পরিবারকে সামাজিকভাবে হেয় করা হয় যা উলিস্নখিত গণমাধ্যমের সামাজিক গ্রহণযোগ্যতা প্রশ্নবিদ্ধ করবে। আমি মনে করি পত্রিকাটি আমাকে ও আমার স্ত্রীকে নিয়ে উদ্দেশ্যমূলক, মিথ্যা, বানোয়াট মানহানিকর সংবাদ পরিবেশন করেছে তা দেশ জাতির জন্য ইতিবাচক নয় । আমি প্রকাশিত সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি। মো: ইমরুল কায়েস
0 Comments