মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪
১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিশ্বকাপে পাকিস্তানি উগ্রবাদীদের সন্ত্রাসী হামলার হুমকি

অনলাইন ডেস্ক | আপডেট: সোমবার, মে ৬, ২০২৪

বিশ্বকাপে পাকিস্তানি উগ্রবাদীদের সন্ত্রাসী হামলার হুমকি
চলছে বিশ্বকাপ আয়োজনের শেষ সময়ের প্রস্তুতি। দলগুলো এরইমাঝে নিজেদের স্কোয়াড পাঠিয়েছে আইসিসির দরবারে। অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা, ভারতের মতো দলগুলো নিজেদের স্কোয়াড প্রকাশ করেছে। বাংলাদেশ এবং পাকিস্তান স্কোয়াড প্রকাশ না করলেও কারা থাকবে বিশ্বকাপের দলে সেই আভাসও দিয়ে ফেলেছে। 

বিশ্বকাপ উপলক্ষ্যে সারাবিশ্ব যখন ক্রিকেট নিয়ে চিন্তায় মগ্ন, তখনই ক্রিকেটের এই উৎসবে জঙ্গি হামলার হুমকি দিয়েছে পাকিস্তানের উগ্রবাদী সংস্থা  ‘প্রো-ইসলামিক স্টেট (দাইশ) এই হুমকি দিয়েছে। পাকিস্তানের একটি সংবাদমাধ্যমে তারা দাবি করেছে যে বিশ্বকাপ চলাকালীন নাশকতা হবে। ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজ এমন হুমকির কথা প্রকাশ্যে এনেছে। 

প্রতিবেদনে জানা যায়, প্রো-ইসলামিক স্টেট নামের এই সংস্থাটি নিজস্ব গণমাধ্যম "নাশির পাকিস্তান"এ হামলার হুমকিসংক্রান্ত এই খবর প্রচার করেছে। ডেইলি এক্সপ্রেসের খবর অনুযায়ী, নাশির পাকিস্তান মূলত ইসলামিক স্টেটেরই প্রপাগান্ডামূলক এক চ্যানেল। 

নিরাপত্তা সতর্কতায় বলা হয়েছে যে, ‘ইসলামিক স্টেট (আইএস)পন্থী গণমাধ্যমগুলো খেলাধুলার ইভেন্টগুলির বিরুদ্ধে সহিংসতাকে উস্কে দেওয়ার প্রচারণা শুরু করেছে। যার মধ্যে আফগানিস্তান-পাকিস্তান শাখা, আইএসখোরাসান (আইএস-কে) থেকে ভিডিও বার্তা রয়েছে। তারা অসংখ্য দেশে হামলার কথা তুলে ধরেছে এবং আহ্বান জানিয়েছে৷’ 

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দলগুলোর স্কোয়াড 
প্রস্তুত বিশ্বকাপে বাংলাদেশের মাঠ, বসছে পিচ
ডেইলি এক্সপ্রেস জানায়, প্রো-ইসলামিক স্টেট সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের ভিডিও প্রকাশ করছে। খেলার মাঠে বিভিন্ন সময়ে যে সব নাশকতার ঘটনা ঘটেছে, সেগুলিই যুক্ত করা হয়েছে এই ভিডিওতে। এর মাধ্যমে পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের নাগরিকদের তাদের লড়াইয়ে যুক্ত হওয়ার প্রস্তাবও দিয়েছে এই জঙ্গি সংগঠন।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ় ক্রিকেট বোর্ড জানিয়েছে, বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া দেশের ক্রিকেটার ও সাপোর্ট স্টাফ এবং দর্শকদের নিরাপত্তার দায়িত্ব তাদের। নিজেদের সেই কাজ তারা করবে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের সিইও জনি গ্রেভস বলেন, ‘আমরা আইসিসির সঙ্গে প্রতিনিয়ত যোগাযোগ রাখছি। যে কয়েকটি মাঠে বিশ্বকাপ হবে সেখানে ও টিম হোটেলে যাতে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা থাকে তা নিশ্চিত করা হবে। আমি সব দেশকে জানিয়ে দিতে চাই, যে ক্রিকেটার, সাপোর্ট স্টাফ ও দর্শকদের নিরাপত্তা আমাদের প্রধান লক্ষ্য।’ 

‘আমরা সমস্ত স্টেকহোল্ডারদের আশ্বস্ত করতে চাই যে আইসিসি পুরুষদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রত্যেকের নিরাপত্তা আমাদের প্রথম অগ্রাধিকার এবং আমাদের কাছে শক্তিশালী নিরাপত্তা পরিকল্পনা রয়েছে’– গ্রেভস যোগ করেন। 
0 Comments