মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪
৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাইনিজ নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে রালি ও আলোচনা সভা

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট: শনিবার, ফেব্রুয়ারী ১০, ২০২৪

চাইনিজ নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে রালি ও আলোচনা সভা
ধ্রুব সংস্থার আয়োজনে ক্লিন ও বিডব্লিউজিইডি এর সহযোগিতায় চাইনিজ নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে রালি ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। উক্ত আলোচনা সভায় অংশগ্রহণ করেন অনেকেই এবং বক্তব্য রাখেন মোঃ মাসুম বিল্লাহ কর্ডিনেটর ধ্রুব, সুমা আইস সুপারভাইজার ধ্রুব শিক্ষিকা আসিয়া বেগম হেমা মন্ডল মৌমিতা দাস সভাপতিত্ব করেন রেখা মারিয়া বৈরাগী নির্বাহী পরিচালক ধ্রুব এবং সার্বিক অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন  সহকারী অধ্যাপক উত্তম দাস। 
বক্তারা বলেন আমাদের দেশের অর্থনীতির গতিশীলতার জন্য চায়না ইনভেসমেন্ট দীর্ঘদিন যাবত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে চলেছে।  বিশেষ করে জ্বালানি ও বিদ্যুৎ ফ্যাক্টরি আমদানি নির্ভর এলএনজি এর উপর নির্ভর করে আমাদের দেশে গড়ে তোলা হয়েছে অনেকগুলো বিদ্যুৎ কেন্দ্র।  বর্তমানে বাংলাদেশে ২৯ টি এল এন জি ভিত্তিক পাওয়ার প্লান্ট রয়েছে পাশাপাশি বাংলাদেশে পাঁচটি কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র রয়েছে এসব ক্ষেত্রে চায়না ইনভেস্টমেন্ট দীর্ঘদিন যাবত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে চলেছে।  তাদেরকে বোঝানো হচ্ছে চায়না আমাদের দেশের অর্থনীতি সচল রাখার জন্য প্রচুর বিনিয়োগ করছে এর জন্য আমরা তাদের কাছে ঋণী এবং কৃতজ্ঞ । এজন্য আমরা তাদেরকে ভালবাসি বিধায় 'চন্দ্র-বর্ষ ২০২৪' আড়ম্বরপূর্ণ ভাবে উদযাপন করছি। এজন্য আমরা তাদের কাছে জানাতে চাই যেন তারা তাদের সহযোগিতার হাত বর্ধিত রাখুক কিন্তু সাথে সাথে এটাও আমরা জানাতে চাই যে এই ইনভেস্ট কখনো কখনো আমাদের দেশের ভবিষ্যতের জন্য ক্ষতিকরও হচ্ছে সেক্ষেত্রে বিনিয়োগ ফসিল ফুয়েল তথা এলএনজি বা কয়লা খাতে যাতে বন্ধ করা হয় সে ক্ষেত্রেও আমরা তাদের কাছে বিনীতভাবে দাবি জানাই।
বক্তারা আরো বেশ কয়েকটা দাবি তুলে ধরেন। সেগুলোর মধ্যে অন্যতম
১) আমাদের জন্য ক্ষতিকর ফসিল ফুয়েল এলএনজি এবং কয়লা খাতে আর কোন বিনিয়োগ না করে আমাদের জন্য সুবিধা জনক এবং  নবায়নযোগ্য জ্বালানিতে বিনিয়োগ করতে হবে 
২) আপনাদের বিনিয়োগকৃত প্রতিষ্ঠানে মানবাধিকার নিশ্চিত করুন। এবং
৩) আপনাদের  বিনিয়োগকৃত প্রতিষ্ঠান কর্তৃক পরিবেশের যেকোনো ক্ষতি না হয় সেদিকে নজর রাখতে হবে।
0 Comments